লেন্স গলে চোখই হারাতে বসেছিলেন নায়িকা 

দিন দিন বেড়েই চলছে কন্টাক্ট লেন্সের ব্যবহার। বিশেষ করে তরুণীরা খুবই আগ্রহী চোখ আকর্ষণীয় করে তোলার এই অনুষঙ্গে। অনেক নায়িকা-মডেলও…

ফেশিয়াল রিকগনিশনে ৬৫ কোটি ডলার খসছে ফেসবুকের 

ফেসবুকের ফেশিয়াল রিকগনিশন বিষয়ে ক্লাস অ্যাকশন মামলা ৬৫ কোটি মার্কিন ডলারে মীমাংসার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছেন মার্কিন ফেডারেল বিচারক। দুই পক্ষের…

নতুন দল নয়, নির্বাচনী লড়াইয়ের ঘোষণা ট্রাম্পের 

২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে নতুন রাজনৈতিক দল খোলার পরিকল্পনা নেই বলে…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

লাইফ

ওজন কমাতে চান? খেয়াল রাখুন বিষয়গুলো… 

ওজন কমাতে চান? খেয়াল রাখুন বিষয়গুলো…

বর্তমান বিশ্বে সবাই এখন স্বাস্থ্য সচেতন। সবাই চান নিজের ওজনকে আয়ত্বের মাঝে রাখতে। বয়স ১৮ হোক কিংবা ৬০, ওজন কমানোই এখন সবার জীবনের মূল লক্ষ্য। ওজন কমানোর জন্য যাবতীয় পরিশ্রম করতে সকলেই রাজি। শুধুমাত্র স্লিম আর ট্রিম হতে চেয়েই পিৎজা-বার্গারের লোভ ছেড়ে দিয়েছেন এমন মানুষের সংখ্যাও কিন্তু এখন নেহাত কম নয়। ওজন কমানোটা কিন্তু এখন চ্যালেঞ্জের মতো।

বর্তমানে আমাদের এই ওজন বেড়ে যাওয়ার কারণ কিন্তু লাইফস্টাইল। ঠিকমতো খাওয়া না হওয়া, ঘুমের ব্যাঘাত, দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ এসবের জন্যই কিন্তু ওজন বাড়ে তরতরিয়ে। সুষম আহার আর হেলদি লাইফস্টাইল মেনে চললে ওজন যেমন নিশ্চিত কমবে তেমনই সেই সঙ্গে মেনে চলতে হবে আরও কিছু নিয়ম বিধি। নিয়ম করে শরীরচর্চা করতেই হবে, ডায়েটেশিয়ানের দেওয়া ডায়েট চার্টের বাইরে খাওয়া চলবে না তেমনই ওজন কমাতে হবে বলে খুব কম খাওয়া দাওয়া করছেন এটাও কিন্তু ঠিক নয়। আর তাই যারা এখন ডায়েট, জিমের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তাদের জন্য রইল জরুরি কিছু পরামর্শ, এই পরামর্শে আপনার ওজন কিন্তু আরও কয়েক কেজি কমবেই।

ঘুমটাও জরুরি

সুস্থ থাকতে যেমন পরিমিত আহার আর এক্সসারসাইজের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে, তেমনই কিন্তু পর্যাপ্ত ঘুমেরও প্রয়োজন আছে। ঘুম ভালো না হলেই মেটাবলিজমে তার প্রভাব পড়ে। আর সেখান থেকে ওজন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর তাই তখন ডায়েট করলেও ওজন যে কমবেই তা জোর দিয়ে বলা যায় না। আর তাই ওজন কমানো যখন মিশন তখন দিনে ৬ ঘন্টা ঘুম কিন্তু আবশ্যক।

সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠুন

শরীরচর্চার জন্য সুবিধে মতো সময় বের করে নিলেও সব থেকে ভালো কিন্তু সকালের সময়। ঘুম থেকে ৭ টার মধ্যে উঠে পড়ুন। এতে BMI ঠিক থাকবে। শরীর এনার্জিও পাবে। সেই সঙ্গে মেটাবলিজম ঠিক থাকবে। আর সকালে শরীরচর্চার যে এফেক্ট হয় সেটা অন্য সময় করলে ততটাও হয় না। আর মনও খুব ভালো থাকে।

ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার

ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড কিন্তু পেটের মেদ ঝরানোর ক্ষেত্রে খুবই ভালো। আর তাই বেশি করে সামুদ্রিক মাছ খান, বিশেষ করে স্যালমন মাছ খেতে পারলে খুবই ভালো। ওজনও যেমন দ্রুত কমবে তেমনই মেটাবলিজম রেটও বৃদ্ধি পাবে।

প্রচুর পরিমাণে পানি খান

পানি আমাদের শরীরে শক্তির প্রধান উৎস। আর তাই ওজন কমানোর ক্ষেত্রে প্রতিদিন চার লিটার পানি অন্তত খেতেই হবে। সেই সঙ্গে শরীরের হজম ক্ষমতাও ঠিক থাকবে পানি খেলে। আর শরীর যত বেশি হাইড্রেট থাকবে তত তাড়াতাড়ি শরীর থেকে কার্বস, ফ্যাট এই সব দূর হবে।

ফল খান

ফ্রুট জুস নয়, প্রতিদিন নিয়ম করে ফল খাওয়া অভ্যেস করুন। বাইরের ভাজাভুজি, স্ন্যাক্স একদমই বাদ রাখুন। সেই জায়গায় বেশি করে ফল খান। তরমুজ, পেঁপে, বেদানা, আপেল, কলা সব খান। প্রয়োজনে ফ্রুট স্যালাড বানিয়ে নিন। সেই সঙ্গে নিয়ম করে এক্সসারসাইজ কিন্তু করতেই হবে। সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য একটু সময় কমিয়ে সেই সময়টাও দিন শরীরের পেছনে। যত বেশি ঘাম ঝরাবেন, তা কিন্তু আপনার শরীরের জন্যেই ভালো।

বাড়ির তৈরি খাবার খান

ডায়েট ফুড এখন বাইরে পাওয়া গেলেও চেষ্টা করুন বাড়ির তৈরি খাবার খেতে। ফল সবজি সবই বাড়িতে কিনে এনে নিজের পছন্দমতো খাবার বানিয়ে নিন। বাড়িতে তেল, মশলা, লবণ সবই নিয়ন্ত্রণে রেখে রান্না করা যায়য়। কিন্তু বাড়ির বাইরে তা হয় না। আর তাই ওজন কমানো লক্ষ্য হলে বাইরের কোনও খাবার খাবেন না।



Related posts