সামাজিক মাধ্যমে শিক্ষকদের পোস্ট দেয়া বিষয়ে সরকারি বিজ্ঞপ্তি 

সামাজিক যোগাযোগের কোনো মাধ্যমে সরকার বা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয় এমন কোনো পোস্ট, ছবি, অডিও বা ভিডিও আপলোড, কমেন্ট, লাইক…

উত্তর কোরিয়ার যে মিসাইল আতঙ্ক হয়ে উঠেছে ইসরায়েলের জন্য 

করোনার মাঝেও ঝমকালো কুজকাওয়াজে নিজেদের সামরিক সক্ষমতা বিশ্বের কাছে তুলে ধরেছে উত্তর কোরিয়া। সেই কুজকাওয়াজে প্রদর্শন করা হয় ‘হোয়াসং-১৫’ ব্যালিস্টিক…

কলকাতায় চিকিৎসা নিতে এখনই বাংলাদেশিদের না যাওয়ার পরামর্শ 

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যের সংখ্যা এখনো নিয়ন্ত্রণের বাইরে। একদিন কমে কো আরেক দিনে বেড়ে যায় শনাক্ত ও আক্রান্ত। প্রতিবেশি…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

চলমান

করোনা নিয়ন্ত্রণে যেসব পদক্ষেপ নিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন 

করোনা নিয়ন্ত্রণে যেসব পদক্ষেপ নিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন

করোনা ভাইরাসের সঙ্গে এমনভাবে লড়াই করছে যুক্তরাষ্ট্র ঠিক যেভাবে করেছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়। এই অবস্থায় যেকোনো গণতান্ত্রিক সরকারের উচিত চীনি কর্তৃত্ববাদী সরকারের সমাধান দেখে বোকা বনে না গিয়ে সেখান থেকে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা নেয়া। ট্রাম্প প্রশানও তাই করছে।

এক সপ্তাহের মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান হানিওয়েল প্রতিজ্ঞা করেছে ম্যাসাচুসেটস থেকে সিমফিল্ডে যন্ত্রপাতি স্থানান্তরের পর প্রতি সপ্তাহে তারা ট্রাম্প প্রশাসনকে লাখ লাখ এন৯৫ মাস্ক তৈরি করে দেবে।

করোনা ভাইরাসের পরীক্ষায় চিকিৎসা সামগ্রীসহ কিটের জরুরি চালান সামরিক বিমানে করে ইতালি থেকে এনেছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। ইতালিতেও ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করেছে করোনা। করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে সেখানে।

দেশের এই দুঃসময়ে সরকার এবং সেনাবাহিনীর পাশে দাঁড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বহুজাতিক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফেডেক্স। মেমফিস বন্দর থেকে করোনা পরীক্ষার সামগ্রী পাঁচটি শহরে তারা পৌছে দেবে বলে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে।

ইতালির চিকিৎসা সামগ্রী উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান কোপান এই দুঃসময়ে যুক্তরাষ্ট্রের পাশে দাঁড়িয়েছে। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের কাছে তারা ৮ লাখ সোয়াব(সার্জারির কাজে ব্যবহৃত প্য্যাড) পৌঁছে দিয়েছে।

ট্রেজারি বিভাগের যোগাযোগের পর অ্যালকোহলিক বেভারেজ উৎপাদনকারী একটি প্রতিষ্ঠান হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের জন্য তাদের উৎপাদনের ধরনে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটি সরকারকে প্রতি সপ্তাহে চার হাজার গ্যালন স্যানিটাইজার দেবে। আরকানসাস, কেনটাকি এবং অন্যস্থানে এসব স্যানিটাইজার উৎপাদন করবে তারা।

করোনার এই ভয়াবহতার সময়ে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ৪০টি কোম্পানি ভেন্টিলেটর এবং ভাইটাল-সাইন মনিটর, টেস্ট কিটস, গ্লাভস এবং ভাইরাস প্রতিরোধী পোষাক তৈরি করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল টেক্সটাইল অর্গানাইজেশন সপ্তাহে ৫০ লাখ মাস্ক তৈরি করবে। এই সপ্তাহেই তারা উৎপাদন শুরু করবে। এছাড়া কারকানার উৎপাদন ধরন পরিবর্তন থেকে কাচামাল উৎপাদন পর্যন্ত সবকিছুর সাথেই সম্পৃক্ত থাকবে তারা।

এসব কার্যক্রম ছাড়াও ট্রাম্প প্রশাসন সতর্ক করেছে যে, এ সংকটপূর্ণ অবস্থায় কোনো প্রতিষ্ঠান যদি মজুদ করে লাভের চেষ্টা করে তবে তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসিনক সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



Related posts