ইংরেজি শেখাতে বিনামূল্যে কোর্স নেবে মার্কিন দূতাবাস 

যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয়, এমন মানুষের জন্য ইংরেজি ভাষার দক্ষতা বৃদ্ধি ও গণমাধ্যম সম্পর্কে জ্ঞান বৃদ্ধির জন্য বিনা মূল্যে অনলাইন…

বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ নেবে সৌদি আরব-ভারত, নেপাল 

বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ কেনার ব্যাপারে প্রকাশ করেছে সৌদি আরব, ভারত, নেপাল ও ভুটান। আনুষ্ঠানিকভাবে ভুটান ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য প্রস্তাব…

প্রথম দেশ হিসেবে কৃত্রিম মাংস ব্যবহারের অনুমতি দিলো সিঙ্গাপুর 

প্রথম দেশ হিসেবে কৃত্রিম মাংস ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে সিঙ্গাপুর। গবেষণাগারে কৃত্রিম উপায়ে তৈরি মাংস খাওয়ার অনুমতি দেওয়ার ঘটনা বিশ্বে এটাই…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

ওপার বাংলা

কলকাতায় চিকিৎসা নিতে এখনই বাংলাদেশিদের না যাওয়ার পরামর্শ 

কলকাতায় চিকিৎসা নিতে এখনই বাংলাদেশিদের না যাওয়ার পরামর্শ

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যের সংখ্যা এখনো নিয়ন্ত্রণের বাইরে। একদিন কমে কো আরেক দিনে বেড়ে যায় শনাক্ত ও আক্রান্ত। প্রতিবেশি ভারতে করোনার অবস্থা আরো ভয়াবহ। বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে দেশটি। ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও করোনা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে।

এ অবস্থার মধ্যেই দীর্ঘদিন পর চিকিৎসা, সাংবাদিক, কূটনৈতিকসহ বেশ কয়েকটি সেক্টরে ভিসাসেবা চালুর ঘোষণা দিয়েছে ভারত। অনেকে তাই প্রস্তুতি নিচ্ছেন যাওয়ার জন্য, বিশেষ করে মেডিক্যাল ভিসা নিয়ে।

ভারতের চিকিৎসা ব্যববস্থা উন্নত হওয়ায় প্রতিবছর অনেক বাংলাদেশি চিকিৎসা সেবা নিতে যান ভারতে। বিশেষ করে কলকাতায়। তবে এ অবস্থায় কলকাতায় বাংলাদেশিদের এখনই না যাওয়ার পরমার্শ দিয়েছে কলকাতার হাসপাতালগুলো।

হাসপাতালগুলো জানিয়েছে, অক্টোবর, নভেম্বর ও ডিসেম্বরে বাংলাদেশি রোগীদের চিকিৎসা নিতে না আসাই ভালো হবে। নতুন বছরে এলে ভালো হবে তাদের জন্য। এর পেছেন করোনা, হাসপাতালে বেড সংকটসহ কিছু যৌক্তিক কারণ দেখিয়েছেন তারা।

দুর্গাপূজার পর কলকাতায় করোনা পরিস্থিতিও খারাপ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ কারণে এখন বাংলাদেশিদের সেখানে উচিত হবে না বলে জানায় হাসপাতাল সূত্রগুলো।

সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৫৯ জনের। রোববার এই সংখ্যা ছিল ৬০। এ নিয়ে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫৪৬ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে উত্তর ২৪ পরগনায়। সেখানে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। কলকাতায় এই সংখ্যা ১৪। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। পশ্চিম মেদিনীপুরে মারা গেছেন ৬ জন এবং হাওড়ায় ৫ জন।

সোমবারও রাজ্যে নতুন সংক্রমণ ৪ হাজারের উপরে। স্বাস্থ্য অধিদপ্ততর বুলেটিন অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ১২১ জন। ২০ অক্টোবর থেকে এই নিয়ে টানা এক সপ্তাহ এক দিনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজারের উপরে।

রোববারের বুলেটিনে ২৪ ঘণ্টায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল ৪ হাজার ১২৭ জনের। রাজ্যে এক দিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ ছিল ২২ অক্টোবর, ৪ হাজার ১৫৭ জনের। এই নিয়ে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ লাখ ৫৩ হাজার ৮২২ জন।২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন কলকাতায়, ৮৯২ জন। উত্তর ২৪ পরগনায় আক্রান্ত ৮৮৯।



Related posts