উত্তর কোরিয়ার যে মিসাইল আতঙ্ক হয়ে উঠেছে ইসরায়েলের জন্য 

করোনার মাঝেও ঝমকালো কুজকাওয়াজে নিজেদের সামরিক সক্ষমতা বিশ্বের কাছে তুলে ধরেছে উত্তর কোরিয়া। সেই কুজকাওয়াজে প্রদর্শন করা হয় ‘হোয়াসং-১৫’ ব্যালিস্টিক…

কলকাতায় চিকিৎসা নিতে এখনই বাংলাদেশিদের না যাওয়ার পরামর্শ 

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যের সংখ্যা এখনো নিয়ন্ত্রণের বাইরে। একদিন কমে কো আরেক দিনে বেড়ে যায় শনাক্ত ও আক্রান্ত। প্রতিবেশি…

ওয়েব সিরিজ ‘মির্জাপুর’র বিরুদ্ধে বাস্তবের মির্জাপুর সাংসদের টুইট 

ভারতের ওয়েব সিরিজ নিয়ে অভিযোগ বিস্তর। প্রতিবার ওয়েব সিরিজ নিয়ে কেউ না কেউ অভিযোগের আঙুল তুলছেনই। এবার সেই আঙুল উঠেছে…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

চলমান

চা শ্রমিকদের বেতন বাড়লো ১৮ টাকা 

চা শ্রমিকদের বেতন বাড়লো ১৮ টাকা

চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ১০২ টাকা থেকে বেড়ে ১২০ টাকা হয়েছে। মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে চলমান আন্দোলনের প্রেক্ষিতে তাদের বেতন বর্ধিত করা হয়েছে।

চুক্তি কার্যকর হওয়ার ফলে ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত সকল বর্ধিত মজুরি পাবেন চা শ্রমিকরা।

আপাতত চা শ্রমিকদের বকেয়া হিসেবে ৩ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মাখন লাল কর্মকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কার্যালয় লেবার হাউস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বেলা ১১টায় শ্রীমঙ্গলস্থ প্রফিডেন্ট ফান্ড অফিসে চা শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি নিয়ে চা শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ ও চা বাগান মালিকপক্ষের সংগঠন বাংলাদেশি চা সংসদের নেতৃবৃন্দের বৈঠক শুরু হয়। টানা ১১ ঘণ্টার বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত আসে।

বৈঠকে শারদীয় দুর্গাপূজার আগেই চা শ্রমিকদের দাবি মেনে নিয়ে নতুন মজুরি প্রদানের দাবি জানান নেতৃবৃন্দ। অপরদিকে, চা সংসদীয় নেতৃবৃন্দ বর্তমান চায়ের বাজারের অবস্থা তুলে ধরে তার ওপর ভিত্তি করে নতুন মজুরির সিদ্ধান্ত নিতে বক্তব্য রাখেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কার্যকরি কমিটির সভাপতি মাখন লাল কর্মকার, সহ-সভাপতি পঙ্কজ কুন্ড ও বালিশিরা ভ্যালি কার্যকরী কমিটির সভাপতি বিজয় হাজরাসহ নেতৃবৃন্দ। বাংলাদেশি চা সংসদের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন তাহসিন আহমদ চৌধুরীর নেতৃত্বে কয়েকজন।



Related posts