স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট২০ ফোনেই থাকছে না হেডফোন 

স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট২০ কিংবা নোট২০ আলট্রা ফোনটি যদি কেউ কিনে থাকেন তাহলে প্যাকেটটি হাতে নিয়েই খানিকটা হাল্কা লাগতে পারে। কেন…

বরেণ্য সুরকার আলাউদ্দিন আলী আর নেই 

বরেণ্য গীতিকার ও সুরকার আলাউদ্দিন আলী মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নালিল্লাহি রাজিউন)। রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে…

স্বাভাবিক হচ্ছে ট্রেন চলাচল 

দীর্ঘদিন পর স্বাভাবিক হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল। আগামী ১৫ আগস্টের পর পর্যায়ক্রমে সকল আন্তঃনগর ট্রেন চালু হ‌বে বলে জানিয়েছেন রেলপথ…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

টেক

টিকটক বন্ধের ঘোষণা ট্রাম্পের! 

টিকটক বন্ধের ঘোষণা ট্রাম্পের!

ক্রমেই অবনতি হচ্ছে দুই পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সম্পর্ক। দুই দেশ একে অপরের কনস্যুলেট বন্ধের রেশ না কাটতেই ডোনাল্ড ট্রাম্প দিয়েছেন আরেক পদক্ষেপের ঘোষণা। এবার তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চীনা অ্যাপ টিকটক বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন। শিগগিরই এই পদক্ষেপ বাস্তবায়ন হবে বলে গণমাধ্যমেকে জানিয়েছেন ট্রাম্প।

এনডিটিভি জানায়, ভারতে আগেই বন্ধ হয়েছে টিকটক। এবার সেই পথে হাঁটছে ট্রাম্প প্রশাসন। এয়ার ফোর্স ওয়ানকে ট্রাম্প বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক নিষিদ্ধ করতে চলেছি। আমার এই অধিকার রয়েছে। আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা এই অ্যাপের সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। তারা জানিয়েছে, এই অ্যাপের মাধ্যমে গোপনে তথ্য সংগ্রহ করছে চীন।

একই অভিযোগ উঠেছিল ভারতেও। তারপরেই টিকটক বন্ধ করে দেয়া হয় সেখানে। তবে টিকটকের পক্ষ থেকে বারবার এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তারা বলছে, চীন সরকারের সাথে কাদের কোনো যোগসূত্র নেই।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, টিকটকের মার্কিন পরিচালনা ক্ষমতা অর্জনের জন্য ভারতীয়-আমেরিকান সত্য নাদেল্লার নেতৃত্বে মাইক্রোসফট প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে। এই চুক্তি কয়েক বিলিয়ন ডলারের হতে পারে। গোপন সূত্রে জানা গেছে, এ বিষয়ে একটি চুক্তি সোমবারের মধ্যেই চুড়ান্ত হতে পারে এবং মাইক্রোসফট, বাইটড্যান্স এবং হোয়াইট হাউসের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এই আলোচনা চলছে। আলোচনার বিষয়টি তাৎপর্যপূর্ণ এবং একসঙ্গে কোনো চুক্তি নাও হতে পারে।চীনের বাইটড্যান্স টিকটকের মূল সংস্থা।

সাম্প্রত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও টিকটকের বিরুদ্ধে আমেরিকানদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করার অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বৃহস্পতিবার হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্যদের বলেন, টিকটকসহ ১০৬টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত, যা ভারতের নাগরিকদের গোপনীয়তা এবং সুরক্ষাকে ঝুঁকির মুখে ফেলছিল।

Related posts