বিবিসির ১০০ প্রভাবশালী নারীর তালিকায় অর্ধেকই আফগান 

২০২১ সালে বিশ্বে ১০০ অনুপ্রেরণাদায়ী ও প্রভাবশালী নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে বিবিসি। সমাজ, সংস্কৃতি ও বিশ্বকে নতুন করে সাজাতে যে…

উমরাহ থেকে ফিরে আধা মিনিটের জন্য হলেও প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে চান মাহি 

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে এক টেলিফোন আলাপ ভাইরালের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে ডা. মুরাদ হাসান…

টিউলিপ সিদ্দিক এখন ব্রিটেনের শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি 

যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির নতুন ছায়া মন্ত্রিসভার ইকোনমিক সেক্রেটারির দায়িত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ আইনপ্রণেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নি টিউলিপ…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

খেলা

টেস্ট ক্রিকেট থেকে আনুষ্ঠানিক অবসর মাহমুদউল্লাহ’র 

টেস্ট ক্রিকেট থেকে আনুষ্ঠানিক অবসর মাহমুদউল্লাহ’র

জিম্বাবুয়ে সফরেই জানা গিয়েছিল টেস্ট আর খেলছেন না মাহমুদউল্লাহ। তবে মুখে কিছু না বলার কারণে সবকিছুতে ছিল গুমোট ভাব। শেষ পর্যন্ত সেই ঘটনার চার মাস পর পরিস্কার বার্তা আসলো টি-টোয়েন্টি ক্যাপ্টেনের মুখে। এক বিবৃতি আজ বুধবার (২৪ নভেম্বর) মাহমুদউল্লাহর টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের কথা জানায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি।

বিবৃতিতে রিয়াদ বলেছেন, ‘আমি অনেকদিন ধরেই খেলেছি এমন একটা ফরম্যাটকে বিদায় বলা সহজ নয়। আমি সবসময়ই সর্বোচ্চ জায়গায় পৌঁছাতে চেয়েছি। আমার বিশ্বাস টেস্ট ক্যারিয়ার শেষ করার এটাই সঠিক সময়।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই বিসিবি সভাপতির প্রতি যিনি আমি টেস্ট দলে ফেরার পর সমর্থন দিয়েছেন। আমার সতীর্থ ও সাপোর্ট স্টাফদেরও ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাকে উৎসাহ দেয়ার জন্য এবং আমার সামর্থ্যে বিশ্বাস রাখার জন্য।’

টেস্ট থেকে বিদায় নিলেও ওয়ানডে ও টি টোয়েন্টি চালিয়ে যাবেন মাহমুদউল্লাহ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যদিও টেস্ট থেকে বিদায় নিচ্ছি, তবে চালিয়ে যাব ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি। ব্যাটে-বলে এই দুই ফরম্যাটে নিজের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব।’

২০০৯ সালের জুলাইয়ে কিংসটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় রিয়াদের। শেষ টেস্ট খেলেছেন চলতি বছরের জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ের মাটিতে। শেষ ম্যাচে তিনি খেলেছিলেন ১৫০ রানের অপরাজিত ইনিংস।

ক্যারিয়ারে ৫০ টেস্ট খেলেছেন মাহমুদউল্লাহ। ৯৪ ইনিংসে ব্যাট হাতে করেছেন ২৯১৪ রান। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৫০ অপরাজিত। গড় ৩৩.৪৯। ১৬টি ফিফটির পাশাপাশি রয়েছে পাঁচটি সেঞ্চুরি। বল হাতে নিয়েছেন ৪৩ উইকেট। সেরা বোলিং ৫১ রানে ৫ উইকেট।



Related posts