corona lockdown shibchar
সারাদেশে ১৪ দিন সর্বাত্মক শাটডাউনের সুপারিশ 

করোনার ডেলটা প্রজাতির ভাইরাসের সামাজিক সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে সর্বাত্মকভাবে ১৪ দিনের কঠোর শাটডাউনের সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক…

অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার আনছে ফেসবুক 

শিগগিরই ই-কমার্স ও অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার নিয়ে আসবে ফেসবুক। গতকাল নিজের ওয়ালে দেয়া এক পোস্টে এ তথ্য নিশ্চিত…

ব্রাজিলের বিতর্কিত গোলে রাগে ফুসছে কলম্বিয়া 

কোপা আমেরিকায় জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে স্বাগতিক ব্রাজিল। গতকাল বুধবার (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল ২-১…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

বিশ্ব

ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চান না পেন্স 

ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চান না পেন্স

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন বিষয়ে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে ভোটাভুটি আজ। তবে এই অধিবেশন শুরু আগেই এক চিঠিতে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ট্রাম্পকে সরাতে সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীর পক্ষে নয় বলে নিম্নপক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিকে জানান ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। এর আগে অধিবেশনে ট্রাম্পের চূড়ান্ত অভিশংসন পত্র প্রকাশ করে হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের প্রতিনিধিরা।

এরই মধ্যে শুরু ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করাতে সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী কার্যকরের পক্ষে-বিপক্ষে ভোট দিচ্ছে হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের প্রতিনিধিরা।

সিএনএনের খবরে জানা যায়, মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ভোটের কয়েক ঘণ্টা আগে স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার রাতে পেলোসিকে এক চিঠিতে পেন্স বলেন, ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরাতে ২৫তম সংশোধনী কার্যকর করবেন না। তিনি আরো বলেন, এটি ভয়ংকর নজির তৈরি করবে।

স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি আইনপ্রণেতা জ্যামি রাসকিনের নেতৃত্বে নয়জন আইনপ্রণেতাকে নিয়ে অভিশংসন কমিটি গঠন করেছেন। এসব আইনপ্রণেতা ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের জন্য যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন।

এছাড়াও একটি অভিশংসন প্রতিনিধি পরিষদের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। যার নেতৃত্বে থাকবেন মেরিল্যান্ডের ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধি জেমি রাসকিন। নাম প্রকাশের পরই অভিশংসন প্রস্তাবটি সবার সামনে উপস্থাপন করেন জ্যামি রাসকিন।

২০ জানুয়ারি নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন শপথ গ্রহণ করবেন। ট্রাম্প ২০ জানুয়ারি দুপুরের পর থেকে আর প্রেসিডেন্ট পদেও নেই। ক্ষমতায় নেই-এমন একজন প্রেসিডেন্টের অভিশংসন নিয়ে আইনপ্রণেতাদের কংগ্রেসে বিতর্ক করার কোনো নজির যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নেই।

ক্ষমতা গ্রহণের প্রথম ১০০ দিনে অনেক কিছু করার পূর্বপ্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস প্রশাসন। প্রশাসনের নতুন নিয়োগ পাওয়া লোকজনের সিনেটে শুনানি গ্রহণ এবং নিশ্চিতকরণ ছাড়া অনেক কিছুই করা সম্ভব হবে না। এমন সময়ে ট্রাম্পকে নিয়ে পড়ে থাকতে চাচ্ছেন না ডেমোক্র্যাট কৌশলবিদেরা।

বিবৃতিতে বলা হয়, দেশ ও দেশের বাইরে আমেরিকার শত্রুর হাত থেকে জনগণ ও সম্পদ রক্ষায় মার্কিন সেনাবাহিনী সব সময় সংবিধানকে সমুন্নত রেখেছে। এক পৃষ্ঠার এমন যৌথ বিবৃতিতে জ্যেষ্ঠ সেনা কর্মকর্তারা সই করেছেন।

এর আগে অভিশংসন প্রস্তাবের পক্ষে ট্রাম্পের দল, রিপাবলিকান পার্টির অন্তত ২০ জন নেতা ভোট দেবেন বলে আশা প্রকাশ করে ডেমোক্রেটরা। ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলের তাণ্ডবে উস্কানির অভিযোগে দ্বিতীয় বারের মত অভিশংসনের মুখে ট্রাম্প।

এদিকে টেক্সাসে সীমান্তদেয়াল পরিদর্শনে যাওয়ার পথে সাংবাদিকদের সঙ্গে অভিশংসন নিয়ে কথা বলেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, তাঁর অভিশংসন করা হলে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি হবে। এতে মানুষের মনে চরম ক্ষোভ তৈরি হবে। তিনি কোনো সহিংসতা চান না। অভিশংসনের জন্য ডেমোক্র্যাটদের প্রচেষ্টাকে উদ্ভট বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী কার্যকরের আহ্বানকে নিজের জন্য কোনো ঝুঁকি মনে করেন না ট্রাম্প।



Related posts