সৌদিগামী বাংলাদেশিদের জন্য নতুন সুযোগ 

দেশে আটকে থাকা প্রবাসী শ্রমিকদের সৌদি আরবে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে চলমান সংকট নিরসনে আগামী সোমবার পর্যন্ত সময় চেয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ…

করোনায় আক্রান্ত টাইগার পেসার রাহী 

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার আবু জায়েদ রাহী। তাকে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমি ভবনে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এর…

ট্রাম্প বিরোধী ভুয়া পেজ মুছে দিলো ফেসবুক 

এশিয়ান এবং আমেরিকান রাজনীতিতে হস্তক্ষেপের অভিযোগ ১৫৫টি চীনা অ্যাকাউন্ট ডিলিট করেছে ফেসবুক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট প্রতিষ্ঠাটির পক্ষ থেকে জানানো…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

টেক

ট্রাম্প প্রশাসনের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে টিকটক 

ট্রাম্প প্রশাসনের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে টিকটক

ভারতে বিরাট আকারে নিষেধাজ্ঞার পরে এবার যুক্তরাষ্ট্রে বড় বাধার মুখে পড়তে যাচ্ছে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটক। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণে রয়েছে টিকটক, চলতি সপ্তাহে এই অ্যাপের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে একটি সুপারিশ যাবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মানুচিন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

টিকটকের ওপর চাপ বাড়াচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের একদল রিপাবলিকান সিনেটর। আর টিকটকের অপারেশন ও বিনিয়োগ বিষয়েও রয়েছে নানা প্রশ্ন। সবমিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চাপের মুখে জনপ্রিয় এই অ্যাপটি।

যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশি বিনিয়োগবিষয়ক কমিটি সিএফআইইউএস টিকটকের বিষয় পর্যালোচনায় রয়েছে, এই তথ্য স্টিভেন মানুচিনের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে এই প্রথম জানা গেছে।

মার্কিন অর্থমন্ত্রী জানান, টিকটক এখন সিএফআইইউএসের পর্যবেক্ষণে আছে। আমরা প্রেসিডেন্টের কাছে একটি পরামর্শ দেব চলতি সপ্তাহে। আমাদের হাতে বহু বিকল্প আছে।

দেশটির আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এ অ্যাপের হস্তক্ষেপের হুমকির বিষয়টি মূল্যায়ন করে দেখতে ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি তারা অনুরোধ জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার এক চিঠিতে উইঘুর মুসলমানদের ওপর চীনের নিপীড়নসহ স্পর্শকাতর বিভিন্ন ভিডিওতে টিকটকের সেন্সর আরোপের কথা উল্লেখ করেন মার্কো রুবিও, টিম কটন ও অন্যান্য আইনপ্রণেতা।

এ ছাড়া এতে সামাজিকমাধ্যমের অ্যাপগুলোতে রাজনৈতিক আলাপ নিয়ন্ত্রণের বিষয়টিও উঠে এসেছে।

ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্সের পরিচালকের অফিস (ওডিএইচআই), হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি ও এফবিআই পরিচালককে লেখা চিঠিতে তারা বলেন, আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন যে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি টিকটকের ওপর চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নিজেদের নিয়ন্ত্রণ স্বার্থ হাসিলে কাজে লাগাতে পারে। বিশেষ করে তারা রাজনৈতিক আলাপগুলো বিকৃত করে আমেরিকানদের মধ্যে অনৈক্য সৃষ্টি করে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করতে পারে।

তবে টিকটকের এক মুখপাত্র বলেন, টিকটক কোনো রাজনৈতিক খবর প্রচারে যাচ্ছে না। তবু আগভাগেই সক্রিয় হয়ে এ সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্ত অব্যাহত রেখেছে। গত নির্বাচন থেকেও অভিজ্ঞতা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ভুল তথ্য প্রচারের বিরুদ্ধে অ্যাপটির কঠোর বিধিনিষেধ আছে। সে অনুসারে আমরা কোনো রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন নিতে পারি না।



Related posts