লেন্স গলে চোখই হারাতে বসেছিলেন নায়িকা 

দিন দিন বেড়েই চলছে কন্টাক্ট লেন্সের ব্যবহার। বিশেষ করে তরুণীরা খুবই আগ্রহী চোখ আকর্ষণীয় করে তোলার এই অনুষঙ্গে। অনেক নায়িকা-মডেলও…

ফেশিয়াল রিকগনিশনে ৬৫ কোটি ডলার খসছে ফেসবুকের 

ফেসবুকের ফেশিয়াল রিকগনিশন বিষয়ে ক্লাস অ্যাকশন মামলা ৬৫ কোটি মার্কিন ডলারে মীমাংসার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছেন মার্কিন ফেডারেল বিচারক। দুই পক্ষের…

নতুন দল নয়, নির্বাচনী লড়াইয়ের ঘোষণা ট্রাম্পের 

২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে নতুন রাজনৈতিক দল খোলার পরিকল্পনা নেই বলে…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

ওপার বাংলা

পশ্চিমবঙ্গে বেড়েই চলেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা, শক্ত অবস্থানে প্রশাসন 

পশ্চিমবঙ্গে বেড়েই চলেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা, শক্ত অবস্থানে প্রশাসন

পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কেবলই ঊর্ধ্বমুখী। রাজ্যে স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া পরিসংখ্যান করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক আরও বাড়াচ্ছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে বুধবার নতুন করে আরও ২,২৯১ জন করোনা রোগীর সন্ধান মিলেছে। সেই সঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। সেখানে একদিনে রেকর্ড ৩৯জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

সব মিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভাইরাসে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২২১ জনে। এখনও পর্যন্ত মোট ৪৯,৩২১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিদিনই এই সংখ্যা বাড়ছে দ্রুতহারে। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে করোনা রোগীর সংখ্যা ১৮,৪৫০ জন। অবশ্য গত ২৪ ঘণ্টায় ১,৬১৫ জন রোগী করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েও উঠেছেন রাজ্যটিতে।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মতো পুরো ভারতেই করোনা সংক্রমণ অত্যন্ত দ্রুতহারে বাড়ছে। বুধবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় যে পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে তাতে দেখা গেছে যে, মঙ্গলবার ভারতে আরও ৩৭,৭২৪ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ৬৪৮ জন রোগী।

ভারতের মধ্যে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য হল মহারাষ্ট্র, মোট করোনা আক্রান্তের মধ্যে ২.৫ শতাংশের চেয়েও বেশি রোগী আছে কেবল সে রাজ্যেই।

এদিকে সোমবার থেকেই ভারতের বিভিন্ন জায়গায় করোনা ভাইরাসের নতুন আবিষ্কৃত টিকা কোভাক্সিনের মানব দেহে পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞ ড. রণদীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন, এই পরীক্ষামূলক ব্যবহার ও তা নিয়ে গবেষণা সংক্রান্ত বিষয়গুলোর সম্পর্কে তথ্য আসতে কমপক্ষে ৩ মাস সময় লাগবে।



Related posts