ভ্যাকসিন আসার আগেই মারা যেতে পারে ২০ লাখ মানুষ, হু’র সতর্কতা 

করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারের আগেই বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ২০ লাখে পৌঁছাতে পারে বলে সতর্ক করলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এখনই…

আপনার আঙুলের নখ যেসব অসুখের লক্ষণ নির্দেশ করে 

কখনো কী ভেবেছেন আপনার আঙুলের হলুদ এবং ক্ষয়ে যাওয়া নখগুলো হতে পারে কঠিন সব রোগের উপসর্গ? হ্যাঁ, অবশ্যই আপনার আঙুলের…

ডোপ টেস্টে পজেটিভ হওয়ায় চাকরি হারাচ্ছেন ২৬ পুলিশ সদস্য 

ডোপ টেস্টে পজেটিভ হওয়ায় ২৬ পুলিশ সদস্য বরখাস্তের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

টেক

বাংলালিংক ইনোভেটর্স চতুর্থ আসরের রেজিস্ট্রেশন শুরু 

বাংলালিংক ইনোভেটর্স চতুর্থ আসরের রেজিস্ট্রেশন শুরু

উদ্ভাবনী তরুণদের জন্য ডিজিটাল ব্যবসায়িক পরিকল্পনার প্রতিযোগিতা বাংলালিংক ইনোভেটর্স-এর চতুর্থ আসরের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বাংলালিংকের চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অফিসার মনজুলা মোরশেদ এক ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে এই ঘোষণা দেন।

উদ্ভাবনী তরুণ প্রতিযোগীদের বাছাই করে গ্রুমিং, বুট ক্যাম্প সেশন, ওয়ার্কশপ ও অন্যান্য আরও কার্যক্রমের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে ‘বাংলালিংক ইনোভেটর্স’। প্রতিযোগিতা শেষে সুনিয়ন্ত্রিত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্বাচিত চার সদস্য বিশিষ্ট বিজয়ী দলের নাম ঘোষণা করা হবে। বিজয়ী দল বাংলালিংকের ‘স্ট্র্যাটেজিক অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোগ্রাম’ এর ‘অ্যাসেসমেন্ট সেন্টারে’ যোগদানের সুযোগের পাশাপাশি পাবে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

প্রথম ও দ্বিতীয় রানার আপ দলকেও এই প্রোগ্রামে যোগদানের সুযোগসহ আকর্ষণীয় পুরস্কার প্রদান করা হবে। এছাড়া সেরা পাঁচ দলের প্রত্যেক সদস্য বাংলালিংকের ‘অ্যাডভান্সড ইন্টার্নশিপে প্রোগ্রাম (এআইপি)’ সরাসরি যোগদান করার পাশাপাশি “লার্ন ফ্রম স্ট্রার্টআপস” ও “ক্যাম্পাস টু কর্পোরেট প্রোগ্রামস” এ অংশগ্রহণ করতে পারবে। শিক্ষার্থীদের স্টার্টআপ ও কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের বাস্তব অভিজ্ঞতা দিতে বিশেষ এই কার্যক্রম দুইটি পরিচালনা করে আসছে বাংলালিংক।

ইউজিসি অনুমোদিত যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা https://ennovators.banglalink.net ভিজিট করে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলালিংক ইনোভেটর্স-এ রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

এ বিষয়ে বাংলালিংকের চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অফিসার মনজুলা মোরশেদ বলেন, প্রযুক্তির মাধ্যমে তরুণদের ক্ষমতায়ণের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কয়েক বছর আগে বাংলালিংক ইনোভেটর্স শুরু করেছিলাম। পরপর চার বছর প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করতে পেরে আমরা সত্যিই আনন্দিত। প্রতিভাবান তরুণরা এর মাধ্যমে আবারও তাদের দক্ষতা প্রদর্শনের সুযোগ পাবে। আমরা আশা করছি, এবছরও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রতিযোগী বাংলালিংক ইনোভেটর্স-এ যোগদান করবে।

ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে আরো যুক্ত ছিলেন বাংলালিংকের ব্র্যান্ডস অ্যান্ড কম্যুনিকেশনস ডিরেক্টর কাজী উরফি আহমেদ ও হেড অফ ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট আয়েশা সাঈদ।



Related posts