স্কুল-কলেজ দুই সপ্তাহ বন্ধ থাকবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী 

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় ২১ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সব স্কুল ও কলেজ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। …

দেশের বিভিন্ন জায়গায় ভূমিকম্প অনুভূত 

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের দেশের বিভিন্ন জায়গায় ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বিকেল ৪টা ১২ মিনিটে এই ভূমিকম্প অনুভূত…

আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে বাংলাদেশের ৩ জন 

টি-টোয়েন্টির পর বর্ষসেরা ওয়ানডে দল প্রকাশ করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। যেখানে জায়গায় পেয়েছেন বাংলাদেশের ৩ ক্রিকেটার। অলরাউন্ডার সাকিব আল…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

চলমান

মন্ত্রিত্বের পর জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার ডা. মুরাদ 

মন্ত্রিত্বের পর জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার ডা. মুরাদ

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করা ডা: মুরাদ হাসানকে এবার জেলা আওয়ামী লীগের পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তিনি জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদকের পদে ছিলেন।

আজ মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

অডিও কেলেঙ্কারিতে প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানো মুরাদ হাসানকে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে এক ‘জরুরি’ সভায় এই সিদ্ধান্ত হয় বলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ জানান।

জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘দলীয় ভাবমূর্তি বিনষ্ট, অগঠনতান্ত্রিক ও শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ততার অভিযোগে’ মুরাদ হাসানকে অব্যাহতি দিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

জেলা আওয়ামী লীগের এ সিদ্ধান্ত মঙ্গলবারই আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে পাঠানো হবে বলে জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহামেদ চৌধুরী জানান।

জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদকের পদে হারালেও দলের প্রাথমিক সদস্যপদ থাকবে মুরাদের। সে বিষয়ে কেবল কেন্দ্রীয় কমিটিই সিদ্ধান্ত নিতে পরে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিকালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্নির্বাহী সংসদের বৈঠক হলে তখন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’



Related posts