সৌদিগামী বাংলাদেশিদের জন্য নতুন সুযোগ 

দেশে আটকে থাকা প্রবাসী শ্রমিকদের সৌদি আরবে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে চলমান সংকট নিরসনে আগামী সোমবার পর্যন্ত সময় চেয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ…

করোনায় আক্রান্ত টাইগার পেসার রাহী 

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার আবু জায়েদ রাহী। তাকে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমি ভবনে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এর…

ট্রাম্প বিরোধী ভুয়া পেজ মুছে দিলো ফেসবুক 

এশিয়ান এবং আমেরিকান রাজনীতিতে হস্তক্ষেপের অভিযোগ ১৫৫টি চীনা অ্যাকাউন্ট ডিলিট করেছে ফেসবুক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট প্রতিষ্ঠাটির পক্ষ থেকে জানানো…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

চলমান

যে কারণে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করলো ভারত 

যে কারণে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করলো ভারত

দেশের পেঁয়াজের বাজারে যখন অস্থিরতা চলছে, ঠিক তখন কোনো ঘোষণা ছাড়াই রপ্তানি বন্ধ করলো ভারত। স্থানীয় বাজার স্থিতিশীল রাখতেই সোমবার রপ্তানি বন্ধের আনুষ্ঠানিক নির্দেশনা জারি করে ভারত সরকার। ফলে, দেশের তিনটি প্রধান স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আসছে না।

এমন এক দিনে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করলো ভারত যেদিন বাংলাদেশ থেকে ১২ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তদানি হয়েছে ভারতে।

এদিকে ক্রেতাদের অভিযোগ, বাজারে মজুদ থাকার পরও ব্যবসায়ীরা অনৈতিকভাবে পেঁয়াজের দাম বাড়াচ্ছেন। ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণার সুবিধা নিচ্ছেন বলে দাবি সাধারণ মানুষের। সোমবার রাত থেকেই পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেড়ে যাওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছে তারা।

জানা গেছে, নিজেদের বাজার সামাল দিতে গত বছর ১৩ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রপ্তানিতে ন্যূনতম মূল্য টনপ্রতি ৮৫০ ডলার বেঁধে দেয় ভারত। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর রপ্তানিই বন্ধ করে দেয় দেশটি। দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম ওঠে ৩০০ টাকা পর্যন্ত।

পরবর্তীতে মার্চ মাসে পেঁয়াজ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় ভারত। কিন্তু সম্প্রতি ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে অতিবৃষ্টি ও বন্যায় পেঁয়াজের উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। ফলে পেঁয়াজের সরবরাহ কমায় এবং মূল্যবৃদ্ধি রুখতে সোমবার থেকে সব ধরনের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে ভারত।

এর আগে, রপ্তানি নিরুৎসাহিত করতে পেঁয়াজের প্রতি টন আড়াইশো ডলারে আমদানি হলেও সোমবার তা চাওয়া হয় ৭৫০ ডলার।

গত বছরের মত পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল না হয়, সেজন্য মিশর, তুরস্কসহ অন্যান্য বিকল্প দেশগুলো থেকে দ্রুত পেঁয়াজ আমদানির পরামর্শ সংশ্লিষ্টদের।



Related posts