corona lockdown shibchar
সারাদেশে ১৪ দিন সর্বাত্মক শাটডাউনের সুপারিশ 

করোনার ডেলটা প্রজাতির ভাইরাসের সামাজিক সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে সর্বাত্মকভাবে ১৪ দিনের কঠোর শাটডাউনের সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক…

অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার আনছে ফেসবুক 

শিগগিরই ই-কমার্স ও অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার নিয়ে আসবে ফেসবুক। গতকাল নিজের ওয়ালে দেয়া এক পোস্টে এ তথ্য নিশ্চিত…

ব্রাজিলের বিতর্কিত গোলে রাগে ফুসছে কলম্বিয়া 

কোপা আমেরিকায় জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে স্বাগতিক ব্রাজিল। গতকাল বুধবার (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল ২-১…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

বিনোদন

সমালোচনার মুখে জয়া বচ্চন, বাড়ানো হলো নিরাপত্তা 

সমালোচনার মুখে জয়া বচ্চন, বাড়ানো হলো নিরাপত্তা

সংসদে কঙ্গোনা রানাওয়াত ও ভোজপুরি চলচ্চিত্রের অভিনেতা-সাংসদ রবি কিষাণের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী ও সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন। সমালোচনা করে এখন উল্টো জনরোষের শিকার অমিতাভ বচ্চন পত্নী। এর জেরে বড় রকমের কোনো ঘটনা যেন না ঘটে সেই আশঙ্কায় বচ্চন পরিবারের জন্য বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে মুম্বাই পুলিশ। জুহুতে অমিতাভ বচ্চনের বাংলো ‘জলসা’র বাইরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য।

বলিউড তারকাদের মাদকসংক্রান্তে মন্তব্য করে সংসদ উত্তপ্ত করে তোলেন বিজেপির সাংসদ রবি কিষাণ। মাদক চক্রের পিছনে পাকিস্তান, চীনের যোগ থাকতে পারে বলেও দাবি করেছিলেন তিনি। সেই বক্তব্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সংসদে সরব হন জয়া বচ্চন, ‘কয়েকজন লোকের জন্য গোটা বলিউডের ভাবমূর্তি নষ্ট করা উচিত নয়। সিনেমার জগৎ থেকে আসা এক সাংসদ লোকসভায় বলিউড সম্পর্কে যে কথা বলেছেন, তাতে আমি লজ্জিত। এরা যে থালায় খাচ্ছেন, সেটাকেই ছিদ্র করছেন।’

তিনি আরও অভিযোগ করেন, দেশের বেহাল অর্থনীতি এবং বেকারত্ব থেকে নজর ঘোরাতেই বলিউডে মাদক চক্রের অভিযোগ নিয়ে বিজেপি নেতারা হইচই শুরু করেছেন।

জয়ার ওই মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া আসে বিভিন্ন দিক থেকে। অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই সরব অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। জয়ার মন্তব্যের পাল্টা হিসাবে সেই কঙ্গনা প্রশ্ন তোলেন, যদি জয়া বচ্চনের ছেলের কিংবা মেয়ের ক্ষেত্রে এই ধরনের ঘটনা ঘটতো তা হলে তিনি কি এমন কথা বলতে পারতেন?

সোশ্যাল মিডিয়ায় জয়ার পক্ষে দাঁড়িয়েছেন অনেকেই। তবে তার মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনার ঢেউও উঠেছে। টুইটারে লকেট চট্টোপাধ্যায় জয়াকে আক্রমণ করে লেখেন, ‘পালঘরে সাধুদের হত্যার ঘটনার সময়ে কিংবা নৌ বাহিনীর প্রাক্তন কর্মকর্তার উপর আক্রমণের সময়ে জয়া বচ্চন কোথায় ছিলেন? সুশান্ত সিংহ রাজপুতকে বলিউডের মাফিয়াদের বলি হতে হয়েছে। সেই সময়েও কোথায় ছিলেন তিনি?’

জয়াকে নিশানা করে আক্রমণের পালায় সেখানেই ছেদ পড়েনি। কারণ, ইতিমধ্যেই টুইটারে #শেমঅনজয়াবচ্চন ট্রেন্ডিং হয়ে উঠেছে। এই পরিস্থিতির উপর নজর রেখেই ‘জলসা’র নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে বলে করা হয়েছে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের অবশ্য মত, বলিউডের মাদক তত্ত্বের প্রতিবাদে সংসদে জয়া বচ্চন যে অবস্থান নিয়েছেন তাতে তার পাশে দাঁড়ানোর বার্তাই দিচ্ছে মহারাষ্ট্রের জোট সরকারের অন্যতম শরিক শিবসেনা। তার কারণ, শিবসেনার দলীয় মুখপাত্র ‘সামনা’য় বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণের ‘বলিউডে মাদক চক্রের যোগ’ মন্তব্যের জবাব দেওয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ‘‘যারা এই দাবি করছেন তারা ভণ্ড এবং দ্বিচারিতায় পরিপূর্ণ। যারা বলেন, বলিউডের সব অভিনেতা এবং প্রযুক্তিবিদ মাদকের ঘোরে রয়েছেন তাদেরই ডোপ টেস্ট করা উচিত।’’



Related posts