corona lockdown shibchar
সারাদেশে ১৪ দিন সর্বাত্মক শাটডাউনের সুপারিশ 

করোনার ডেলটা প্রজাতির ভাইরাসের সামাজিক সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে সর্বাত্মকভাবে ১৪ দিনের কঠোর শাটডাউনের সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক…

অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার আনছে ফেসবুক 

শিগগিরই ই-কমার্স ও অনলাইন শপিংয়ের জন্য নতুন ফিচার নিয়ে আসবে ফেসবুক। গতকাল নিজের ওয়ালে দেয়া এক পোস্টে এ তথ্য নিশ্চিত…

ব্রাজিলের বিতর্কিত গোলে রাগে ফুসছে কলম্বিয়া 

কোপা আমেরিকায় জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে স্বাগতিক ব্রাজিল। গতকাল বুধবার (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল ২-১…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

বিশেষ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনার সময় খেয়াল করবেন যেসব বিষয় 

হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনার সময় খেয়াল করবেন যেসব বিষয়

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যই জীবনকে স্বাভাবিক করার চেষ্টা বিশ্ববাসীর। স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রায় স্বাভাবিক হতে চলেছে প্রতিটি সেক্টর। জীবনের তাগিদে ঘর ছাড়া হলেও স্বাস্থ্যবিধির বিষয়টি মাথায় রাখতে হচ্ছে সকলকে। মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব যথা সম্ভব মেনে চলা, পকেটে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখা এখন নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাস্ক পরার পাশাপাশি নিয়মিত স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে বিশেষভাবে পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। এ কারণে করোনা সংক্রমণ রোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের গুরুত্বও অনেক।

তাই হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। এ বিষয়ে ইজিপ্ট ইনডিপেনডেন্ট জানায়, এমন হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনুন যার বেশিরভাগ উপাদান অ্যালকোহল এবং সাথে অন্যান্য উপাদানও থাকবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন(সিডিসি) জানায়, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের কমপক্ষে ৬০ শতাংশ ইথাইল অ্যালকোহল বা ৭০ শতাংশ আইসোপ্র্রোপাইল থাকতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) জানায়, এছাড়াও হ্যান্ড স্যানিটাইজার অ্যানান্য উপাদান যেমন পরিশোধিত পানি, হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড এবং গ্লিসারিন যুক্ত করা যেতে পারে।

তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজারে মিথানল বা ওয়ান-প্রোপানলযুক্ত কোনোকিছু পরিহার করতে হবে। এফডিএ আরো জানায়, সবার উচিত খাবার এবং পানীয়র কন্টেইনারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার বিষয়ে সতর্ক হতে হবে। এতে বিপদ হতে পারে।

যেসব হ্যান্ড স্যানিটাইজারে অ্যালকোহলের পরিবর্তে বেঞ্জাকোনিয়াম ক্লোরাইড দেয়া হয় সেগুলো পরিহার করা পরামর্শ দেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তারা জানান, এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাস নাশ করার ক্ষেত্রে কম কার্যকর। এছাড়াও তারা, নিজে নিজে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করতে নিষেধ করেন, কারণ রাসায়নিকের ভুল মিশ্রণের কারণে তা কার্যকারিতা হারাতে পারে বা ত্বক পুরে যাওয়ার কারণ হতে পারে।

কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির সংক্রামক রোগ গবেষক বরুন মাথেমা বলেন, যখন আপনি সাবান এবং পানি দিয়ে হাত ধুতে পারবেন না, কেবল তখনই হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা উচিত। বেশি মাত্রায় জীবাণুমুক্ত করার জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চেয়ে হাত ধোয়া ভালো।



Related posts