শিশুদের স্মার্টফোন আসক্তি
শিশুর স্মার্টফোনে আসক্তি কমবে যেভাবে 

তথ্যপ্রযুক্তির এ সময়ে স্মার্টফোন নিত্যপ্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে। করোনা মহামারির লকডাউনের সময়ে এর ব্যবহার বেড়েছে বহুগুণ। প্রায়ই দেখা যায়, অভিভাবকরা…

মেসি-দিবালা-লাওতারোদের ছাড়াই ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা 

মেসি-দিবালা-লাওতারোদের ছাড়াই ব্রাজিল-উরুগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামার জন্য রাজি হয়ে গিয়েছে আর্জেন্টিনা। ব্রাজিল ছাড়াও আরেক লাতিন পরাশক্তি উরুগুয়ের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের…

ইন্টারনেটে নিপীড়ন
ইন্টারনেটে নিপীড়ন বা নির্যাতনের শিকার ৩০ শতাংশ শিশু 

৩০ শতাংশ শিশু করোনাকালে কোনও না কোনোভাবে ইন্টারনেটে নিপীড়ন বা নির্যাতনের শিকার হয়েছে। ১২ শতাংশ শিশু এ বিষয়ে কোনও তথ্য…

সব সংবাদ-তথ্য-ভিডিও

বিশেষ

অ্যান্টার্কটিকার সাদার রাজ্যে রক্তের নদী! 

অ্যান্টার্কটিকার সাদার রাজ্যে রক্তের নদী!

অ্যান্টার্কটিকা নামটি শুনলেই সবার মনে নিশ্চয় ভেসে ওঠে সাদা বরফের দিগন্ত। প্রায় সারাবাছর হিমশীতল আবহাওয়ার কারণে এরকমই দেখা যায় সেখানে। তবে সাদার রাজ্যে হঠাৎ লাল রক্ত বর্ণ দেখা দেয়াতে আলোচনায় এসেছে অ্যান্টার্কটিকা।

গত ২/৩দিন ধরে বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে।

যত দূর চোখ যায় সাদা বরফ হয়ে গেছে লাল রক্তের নদী, যেন একখণ্ড মঙ্গলগ্রহ! তুষারের বুক বেয়ে নেমে আসা রক্তস্রোত হিমশীতল জমাট বেঁধে গিয়েছে! অ্যান্টার্কটিকার এধরণের নানা ছবি বর্তমানে ভাইরাল হয়েছে সামাজিক মাধ্যমে।

বিষয়টি আসলে কী?

এই কৌতূহলের রহস্য ভেদ করেছে ইউক্রেনের শিক্ষা ও বিজ্ঞান মন্ত্রণালয়। কিছুদিন আগে তারাই এই অদ্ভুত ছবি ছেড়েছিল ফেসবুকে। শেয়ার হতে হতে ভাইরাল সেই লাল বরফের ছবি।

সেই ছবিতে দেখা গেছে, প্রাক্তন ব্রিটিশ গবেষণাগারের চারপাশের তুষার ক্রমে লালবর্ণ ধারণ করছে। ইউক্রেনের বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় জানাচ্ছে, এই লাল মাইক্রোস্কোপিক অ্যালগি বা শেত্তলার কারণে। হিমশীতল তাপমাত্রাতেও এই শ্যাওলারা দিব্যি বেঁচে থাকতে পারে।

টুইটারে এই ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, অ্যান্টার্কটিকার রক্তলাল বরফ জলবায়ু পরিবর্তনের অশুভ লক্ষণ। যদিও ইউক্রেনের বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় তা বলছে না। এই মন্ত্রণালয়ের দাবি, অ্যান্টার্কটিকায় গ্রীষ্মের মাসগেলোতে পরিবেশ অনুকূল থাকার কারণেই এই মাইক্রোস্কোপিক শ্যাওলার জন্ম হয়।

তারা আরও জানাচ্ছে, লালবর্ণের কারণে তুষার থেকে কম সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয়। ফলে, বরফ দ্রুত গলে যায়। যার জন্য শ্যাওলাকে আরও উজ্জ্বল দেখায়।

জানা গেছে, ক্ল্যামিডোমোনাস নিভালিস নামের এই শৈবালগুলোর কোষগুলোতে একটি লাল ক্যারোটিন স্তর থাকে। যা এই শ্যাওলাকে অতিবেগুনি বিকিরণের হাত থেকে রক্ষা করে। সেইসঙ্গে তুষারে লাল দাগ তৈরি করে। এই লাল রঙের কারণেই, তুষার কম সূর্যের আলো প্রতিফলিত করে, দ্রুত গলে যায়।



Related posts